মুক্তিযুদ্ধ বগুড়া

বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে কিছু বগুড়ার নায়কেরা

বগুড়া লাইভ : বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে কিছু বগুড়ার মুক্তিযোদ্ধারা। উনারা জীবন দিয়ে আমাদের স্বাধীনতা এনে দিয়েছেন, উনারা হচ্ছেন (১) শহীদ বীর মুক্তিযোদ্ধা শাহ্‌ মমিনুল হক হিটলু (শহীদ ২৬সে মার্চ ১৯৭১) (২) শহীদ বীর মুক্তিযোদ্ধা গোলাম মোহাম্মাদ পাইকার খোকন (৩) শহীদ বীর মুক্তিযোদ্ধা মাসুদ আহমেদ (৪) শহীদ বীর মুক্তিযোদ্ধা সাইফুল ইসলাম (৫) শহীদ বীর মুক্তিযোদ্ধা এ টি এম মুসা টিটু (শহীদ ২৬সে মার্চ ১৯৭১) (৬) শহীদ বীর মুক্তিযোদ্ধা মস্তাফিজুর রাহমান ছোনু (শহীদ ২৬সে মার্চ ১৯৭১)

বিজ্ঞাপন

শহীদ বীর মুক্তিযোদ্ধা শাহ্ মমিনুল হক হিটলু (শহীদ ২৬শে মার্চ ১৯৭১) উনার হাতে ছিল দুইনলা একটি বন্দুক আর দুটো গুলি এই নিয়ে যুদ্ধ শুরু করেছিলো । ২৬শে মার্চের বগুড়ার বড়গোলার তৎকালীন ইউনাইটেড বাঙ্কের ছাদে পাক সেনাদের সঙ্গে সামনা সামনি যুদ্ধ করতে গিয়ে ধরা পরেন এবং পড়ে নানা নির্যাতন
করার পর উনাকেও মেরে ফেলে

শহীদ বীর মুক্তিযোদ্ধা গোলাম মোহাম্মাদ পাইকার খোকন ।
দালালদের সহযোগিতায় আমার এই মুক্তিযোদ্ধা পাক সেনাদের হাতে ধরা
পড়ে তারপর উনাকে পা বেঁধে উলটো করে গাছে ঝুলিয়ে গরম পানিতে মাথা ডুবিয়ে নানা ভাবে নির্যাতন করে মেরে ফেলেছিল । এই সেই খোকন যিনি আমাদের জন্য এই বাংলাদেশ
তৈরি করে গেছেন । উনি প্রাত্তন বাংলাদেশ বাঙ্কের গভর্নর লুতফর রহমান সরকার সাহেবের শ্যালক ।

শহীদ বীর মুক্তিযোদ্ধা মাসুদ আহমেদ স্বাধীনতা যুদ্ধের আর একজন বীর । উনি বগুড়া আড়িয়ার বাজারে আবস্থিত তৎকালীন ক্যান্টনমেন্ট এর প্রধান পাক সৈন্যর সঙ্গে সম্মুখ যুদ্ধে শহীদ হয়েছিলেন । উনি আমাদের বগুড়া জিলা স্কুলের প্রার্তন ছাত্র ছিলেন ।

শহীদ বীর মুক্তিযোদ্ধা সাইফুল ইসলাম উনি আমাদের বগুড়া জিলা স্কুলের প্রার্তন ছাত্র এবং আমাদের ক্লাসমেট ছিলেন । উনাকে দালালদের সহযোগিতায় পাক সেনারা ধরেনিয়ে নাটোর রোডে বাবুরপুকুরে ১৪জন বীর মুক্তিযোদ্ধার সঙ্গে হাত-পা বেঁধে গুলি করে মেরেছিল।

শহীদ বীর মুক্তিযোদ্ধা এ টি এম মুসা টিটু (শহীদ ২৬সে মার্চ ১৯৭১) ২৫শে মার্চের রাতে অর্থাৎ ২৬শে মার্চের ভোররাতে বাঁশের তৈরি বল্লম (জ্যাভলিন) হাতে নিয়ে বগুড়ার বড়গোলার তৎকালীন ইউনাইটেড বাঙ্কের ছাদে পাক সেনাদের সঙ্গে সামনা সামনি যুদ্ধ করতে গিয়ে রাইফেলের বেয়োনটের আঘাতে শহীদ হয়েছিলেন ।

শহীদ বীর মুক্তিযোদ্ধা মোস্তাফিজুর রাহমান ছোনু (শহীদ ২৬সে মার্চ ১৯৭১)
২৬শে মার্চের বগুড়ার বড়গোলার তৎকালীন ইউনাইটেড বাঙ্কের ছাদে পাক সেনাদের সঙ্গে সামনা সামনি যুদ্ধ করতে গিয়ে ধরা পরেন এবং পড়ে নানা নির্যাতন করার পর উনাকেও মেরে ফেলে ।

মাহফুজ-উর রহমান এর ফেসবুক থেকে সংগৃহিত।

এ বিভাগের অন্য খবর

Back to top button