Uncategorized

বগুড়ায় যুবক অপহরণ, নন্দীগ্রাম থেকে উদ্ধার

বগুড়ায় হাফেজ সিরাজুল ইসলাম (২৫) নামের এক যুবককে অপহরণের পর একটি শ্মশান থেকে হাত-পা বাঁধা অবস্থায় উদ্ধার করেছে পুলিশ ও এলাকাবাসী।

২১ নভেম্বর শনিবার সন্ধ্যায় নন্দীগ্রাম উপজেলার কুচাইগাড়ি শ্মশান থেকে তাকে উদ্ধার করে পুলিশ ও এলাকাবাসী।

হাফেজ সিরাজুল ইসলাম সোনাতলা উপজেলার শালিখা পশ্চিমপাড়া গ্রামের বাচ্চু বেপারীর ছেলে। তিনি বগুড়া শহরের কানছগাড়ি এলাকায় ফাতেমা ফিজিওথেরাপি সেন্টারে ম্যানেজার হিসেবে কর্মরত।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়: শনিবার বিকেল ৪টার দিকে হাফেজ সিরাজুল ইসলাম কর্মস্থল থেকে বের হন।এসময় অজ্ঞাত দুই ব্যক্তি সিরাজুলকে আটক করে একটি সিএনজি চালিত অটো রিকশায় উঠায়। সেখান থেকে নাটোর রোডে শাকপালা মোড়ে নিয়ে গিয়ে তাকে মোটরসাইকেলে উঠিয়ে নন্দীগ্রাম উপজেলার কুচাইগাড়ি শ্মশানে নিয়ে যায়। সেখানে তার হাত-পা বেঁধে হত্যার চেষ্টা করা হয়। এসময় তার চিৎকার শুনে শ্মশানের পাশ দিয়ে হেঁটে যাওয়া লোকজন এগিয়ে গেলে অজ্ঞাত দুই ব্যক্তি সিরাজুলকে রেখে পালিয়ে যায়। পরে পুলিশে খবর দেওয়া হলে পুলিশ সিরাজুল ইসলামকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।

নন্দীগ্রাম থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) আব্দুর রশিদ জানান: উদ্ধারকৃত সিরাজুলকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। তবে কি কারণে তাকে বগুড়া শহর থেকে অপহরণ করে আনা হলো তা জানা যায়নি।

সম্পর্কিত পোস্ট

Back to top button
error: Content is protected !!