খেলাধুলা

এবি ডি ভিলিয়ার্স এর ঝড়ে ব্যাঙ্গালোরুর বড় জয়

ক্রিকেট তারকা এবি ডি ভিলিয়ার্সের ঝড়ো ব্যাটিংয়ের রাজস্থান রয়্যালসের বিপক্ষে ৭ উইকেটের বড় জয় পেয়েছে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর। এই জয়ের ফলে আইপিএল ত পয়েন্ট টেবিলে ৩ নম্বরে উঠে এসেছে বিরাট কোহলির দল।

রাজস্থানের দেয়া ১৭৮ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে বেঙ্গালুরুকে ভালো শুরু এনে দিতে পারেননি দুই ওপেনার দেবদূত পাদিকাল এবং অ্যারন ফিঞ্চ। দলীয় ২৩ রান বলে শ্রেয়াশ গোপালের বলে উইকেটের পেছনে ক্যাচ দেন ফিঞ্চ।

এরপর অধিনায়ক কোহলির সঙ্গে ৮১ রানের জুটি গড়েন পাদিকাল। এই বাঁহাতি ব্যাটসম্যান ৩৭ বলে ৩৫ রান করে রাহুল তেওয়াতিয়ার বলে ক্যাচ দেন বেন স্টোকসের হাতে। কোহলি ৩২ বলে ৪৩ রানের ইনিংস খেলে কার্তিক ত্যাগির শিকার হন।

চতুর্থ উইকেটে গুরুকৃত সিংকে নিয়ে অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান এবি ডি ভিলিয়ার্স দারুণ এক জুটি গড়ে বেঙ্গালুরুর জয় নিশ্চিত করেন। ভিলিয়ার্স ২২ বলে অপরাজিত ৫৫ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলেন। ১৭ বলে ১৯ রানের ইনিংস খেলে তাকে দারুণ সঙ্গ দেন গুরুকৃত।

এর আগে এই ম্যাচে টসে জিতে ব্যাট করতে নেমে রাজস্থানকে উড়ন্ত সূচনা এনে দেন বেন স্টোকস এবং রবিন উথাপ্পা। এই দুজনে ওপেনিংয়ে যোগ করেন ৫০ রান। ১৯ বলে ১৫ রান আসে বেন স্টোকসের ব্যাট থেকে।

এরপর দ্রুতই ফিরে যান উথাপ্পা (৪১) এবং সঞ্জু স্যামসন (৯)। চতুর্থ উইকেটে দারুণ এক জুটি গড়ে রাজস্থানের বিপর্যয় সামাল দেন অধিনায়ক স্টিভেন স্মিথ এবং জস বাটলার। এই দুজনের ৫৬ রানের জুটি ভাঙেন ক্রিস মরিস।

এই পেসার জস বাটলারকে ফেরান ২৪ রানে। স্মিথ হাফ সেঞ্চুরি তুলে নিয়ে ৫৭ রানে একই বোলারের বলে আউট হন। এরপর রাহুল তেওয়াতিয়া ১১ বলে ১৯ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলে রাজস্থানের বড় সংগ্রহ নিশ্চিত করেন।

ইনিংসের শেষ নবলে ২ রান করা জফরা আর্চারকে এলবিডব্লিউ করে ফিরিয়েছেন মরিস। বেঙ্গালুরুর এই পেসার একাই নিয়েছেন ৪ উইকেট। বাকি দুই উইকেট গেছে যুবেন্দ্র চাহালের ঝুলিতে।

সম্পর্কিত পোস্ট

Back to top button
error: Content is protected !!