জাতীয়বই

প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিনের স্মারকগ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৪তম জন্মদিনের স্মারকগ্রন্থ ‘পিতা থেকে কন্যা : স্বাধীনতা থেকে অর্থনৈতিক মুক্তি’র মোড়ক উন্মোচন করেছেন তথ্যমন্ত্রী ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ এমপি।

আজ সোমবার তথ্য মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে তিনি বইটির মোড়ক উন্মোচন করেন। এ সময় বইটির সম্পাদক কানাডিয়ান ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ ও পদ্মা ব্যাংক লিমিটেডের চেয়ারম্যান চৌধুরী নাফিজ সরাফাত, প্রকাশক জয়ীতা প্রকাশনীর স্বত্ত্বাধিকারী ইয়াসিন কবীর জয়, বইটির প্রচ্ছদশিল্পী শাহরিয়ার খান বর্ণ, বাংলাদেশ সংবাদ সংস্থার (বাসস) সিনিয়র ফটোসাংবাদিক সাইফুল কল্লোল এবং ছড়াকার-কবি আসলাম সানি উপস্থিত ছিলেন।

জয়ীতা প্রকাশনী থেকে প্রকাশিত স্মারক গ্রন্থ ‘পিতা থেকে কন্যা : স্বাধীনতা থেকে অর্থনৈতিক মুক্তি’র মুখবন্ধ লিখেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তণ উপাচার্য আ আ মস আরেফিন সিদ্দিক। ১৫০ পৃষ্ঠার সুলিখিত গ্রন্থটির ৫টি অধ্যায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বর্ণাঢ্য কর্মময় জীবন এবং বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা বিনির্মাণে বঙ্গবন্ধুকন্যার নিরন্তর সংগ্রামের তথ্যবহুল বিবরণ ও বহু দুর্লভ ছবি দিয়ে সাজানো হয়েছে।

বইটিতে রয়েছে বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার জন্ম, বেড়ে ওঠা, ছাত্রজীবন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের নেতৃত্ব গ্রহণ এবং সুদক্ষ ও বলিষ্ঠভাবে দল পরিচালনাসহ নানা চড়াই-উতরাই পেরিয়ে ১৯৯৬ সালের নির্বাচনে জনরায়ে প্রথমবার প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হওয়ার বিবরণ। পরে ২০০১ সালে ষড়যন্ত্র ও কারচুপির নির্বাচনে তাঁকে পরাজিত করে চলে চারদলীয় জোট সরকারের দুঃশাসন ও অপশাসন এবং সেই ফলশ্রুতিতে অনিবার্যভাবে আসে সেনাসমর্থিত তত্ত্বাবধায়ক সরকার। মিথ্যা মামলায় জননেত্রী শেখ হাসিনা কারাগারে যান। ২০০৮ সালের ২৯ ডিসেম্বরের নির্বাচনে নিরঙ্কুশ জয় পায় বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ এবং ২০০৯ সালের ৬ জানুয়ারি সরকার গঠন করে প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হন শেখ হাসিনা। নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ে তোলেন।

শিক্ষা, বিদ্যুৎ, কৃষি, মৎস্য, খাদ্য, তৈরি পোশাকশিল্প, ব্যবসা-বাণিজ্যসহ প্রতিটি ক্ষেত্রে সামনের সারিতে অবস্থান করে উন্নয়নের মহাপরিকল্পনা নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছেন। বঙ্গবন্ধু হত্যা ও যুদ্ধাপরাধীদের বিচার ও দণ্ড কার্যকর করে জাতিকে কলঙ্কমুক্ত করেছেন। বাংলাদেশের রিজার্ভ ও রেমিট্যান্স সর্বকালের রেকর্ড অবস্থানে রয়েছে। তিনি ভিশন ২০২১, উন্নত ও সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গঠন ২০৪১ ও ডেল্টা প্ল্যান ২১০০ নামে সবিশেষ কর্মসূচি নিয়েছেন। স্বপ্নের পদ্মা সেতু, বঙ্গবন্ধু টানেল, মেট্রোরেলসহ ১২টি মেগা প্রকল্পের কাজ সমাপ্ত হলে বদলে যাবে বাংলাদেশের দৃশ্যপট। বাংলাদেশের বিস্ময়কর উন্নয়ন ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্ব আজ বিশ্বসভায় প্রভূত প্রশংসিত। এ জন্য তিনি জাতিসংঘ ও বিভিন্ন দেশের সরকারপ্রধানদের কাছ থেকে সম্মানজনক অসংখ্য পদকে ভূষিত হয়েছেন। বাংলাদেশের ইতিহাসে চতুর্থ মেয়াদে তিনি প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দেশ পরিচালনা করছেন।

স্মারক গ্রন্থটির মূল্য ১৪০০/- টাকা। পাওয়া যাবে ২০-২১, বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউ, সিটি ভবন, ৫ম তলায় অবস্থিত জয়ীতা প্রকাশনীর কার্যালয়ে।

সম্পর্কিত পোস্ট

Back to top button
error: Content is protected !!