লাইফস্টাইল

প্রোডাক্ট ফটোগ্রাফি শুরু করেছেন? কী কী করবেন

প্রোডাক্ট ফটোগ্রাফি নতুন উদ্যোগ বা ব্যবসার অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ জিনিস। এর ওপর এমনকি ব্যবসার উন্নতিও নির্ভর করে।

অনেক মানুষ এখন অনলাইন থেকে কেনাকাটা করে। কোনো কিছু কেনার আগে তারা চায় নিশ্চিত হতে তারা যে প্রোডাক্ট কিনছে সেটা আসলে ভালো কিনা, সেটা ছবির মতই কিনা বা যেখান থেকে কিনছেন সে স্টোরটা বিশ্বাসযোগ্য কিনা।

এই সবগুলি সমস্যার সমাধান করা যায় দুটি জিনিস দিয়ে। এক. সততা, ২. ভালো প্রোডাক্ট ফটোগ্রাফি।

অনেকে ইচ্ছা করেই একটার ছবি দেখিয়ে অন্য প্রোডাক্ট দেন। কিন্তু আপনি যদি দীর্ঘদিন ব্যবসা করতে চান এবং নিজের প্রতিষ্ঠানের সুনাম চান তাহলে ভালো ফটোগ্রাফির পাশাপাশি সততার বিকল্প নেই।

অনেক উদ্যোক্তাই এখন ফটোগ্রাফার দিয়ে ছবি তোলান, বা অনেকের নিজস্ব ক্যামেরা আছে। আপনার যদি এই দুই সুবিধার একটাও না থাকে তবুও আপনি অনেক ভালো প্রোডাক্ট ফটোগ্রাফি করতে পারবেন কিছু সহজ সূত্র মেনে। তা কী কী?

#১. যথেষ্ট আলো ব্যবহার করুন

প্রোডাক্ট ফটোগ্রাফির সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ের একটা হচ্ছে আলো। ছবি তোলার সময় যথেষ্ট আলো না থাকলে ছবি দেখতে ভালো লাগবে না। প্রোডাক্টের ডিটেইল বোঝা যাবে না। সবচেয়ে ভালো হয় দিনের আলোতে ছবি তুলতে পারলে। সম্ভব না হলে যথেষ্ট লাইটের ব্যবস্থা করে তারপর ছবি তুলুন।

#২. ইউটিউব থেকে ফটোগ্রাফির বেসিক শিখুন

অনেকের ধারণা ভালো ছবি তুলতে ভালো ক্যামেরা থাকাই যথেষ্ট। এই ধারণা ভুল। একটা ভালো মোবাইল ক্যামেরা দিয়েই অনেক ভালো ছবি তোলা সম্ভব। তার জন্যে আপনার জানতে হবে দরকার অনুসারে মোবাইল ক্যামেরার সেটিংস কীভাবে পরিবর্তন করবেন। ক্যামেরা অ্যাংঙ্গেল, ব্যাকগ্রাউন্ড ইত্যাদি বিষয়ে জানতে হবে। ইন্টারনেট বা বলা ভালো ইউটিউবে এই বিষয়ক প্রচুর প্রফেশনাল ভিডিও পাবেন। তা দেখেই ঘরে বসে শিখে নিতে পারেন প্রোডাক্ট ফটোগ্রাফির বেসিক।

#৩. প্রিয় ব্র্যান্ড থেকে আইডিয়া নিন

অনুপ্রেরণা কাজের জন্য সবসময়ই ভালো। তার কারণে অনেক আইডিয়াও আসে। আপনি যেই ব্যবসা করছেন তা আরো কারা করছে দেশের বাইরে ও দেশে? তাদের মধ্যে আপনার প্রিয় কারা? তারা তাদের প্রোডাক্ট ফটোগ্রাফি কীভাবে করছে? কী কী রাখছে তারা ব্যাকগ্রাউন্ডে? প্রোডাক্টটাকে কীভাবে রাখছে? এই প্রশ্নগুলির উত্তর খোঁজার চেষ্টা করুন আপনার প্রিয় ব্র্যান্ডগুলির ছবি দেখে দেখে।

#৪. সিম্পল প্রপস ব্যবহার করুন

প্রপস হলো ছবির সঙ্গে বাড়তি যে সহায়ক জিনিসগুলি থাকবে। ধরুন, আপনার জুয়েলারির বিজনেস। একটা নেকলেসের ছবি তুলবেন আপনি। নেকলেসের পাশে আপনি একটা ফুলও রাখলেন, একটা জুয়েলারি বক্সও রাখলেন। এই ফুল আর জুয়েলারি বক্সটাই হলো প্রপ। প্রপসের কাজ ছবির সঙ্গে আমাদের সংযোগ তৈরি করতে সাহায্য করা, ছবি সৌন্দর্য বাড়িয়ে তোলা। ভালো প্রপস যোগ করতে পারলে আপনার ছবি খুব সহজেই আকর্ষণীয় দেখাবে। তবে খেয়াল রাখবেন প্রপস যেন প্রোডাক্টের চেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ না হয়ে ওঠে ছবিতে।

#৫. বিভিন্ন অ্যাঙ্গেল থেকে একাধিক ছবি তুলুন

প্রোডাক্টের একটা ভালো ছবি পেতে অসংখ্য ছবি তোলার কোনো বিকল্প নেই। সেটা তুলতে হবে বিকল্প অ্যাঙ্গেল থেকে। হয়তো আপনি একটা অ্যাঙ্গেল থেকেই ছবি তোলেন সবসময়। কিন্তু সব প্রোডাক্ট একভাবেই দেখতে ভালো লাগবে তা কিন্তু না। একঘেয়ে লাগতে পারে আপনার সবগুলি প্রোডাক্টের ছবি যদি একইরকম হয়। সেক্ষেত্রে, এক্সপেরিমেন্ট করুন। বিভিন্নভাবে, বিভিন্ন অ্যাঙ্গেলে ছবি তুলে দেখুন। তুলনা করুন ছবির মধ্যে।

#৬. সন্দেহ থাকলে সাদা ব্যাকগ্রাউন্ড ব্যবহার করুন ও এডিটিংয়ের সময় সতর্ক থাকুন

প্রোডাক্ট ফটোগ্রাফির ক্ষেত্রে ব্যাকগ্রাউন্ড খুব গুরুত্বপূর্ণ জিনিস। যেমন খাবারের ছবি তোলার ক্ষেত্রে ব্যাকগ্রাউন্ডে বিভিন্ন প্যাটার্ন রাখা বা ভিড় থাকা আইডিয়া হিসেবে তত ভালো নয়। এসব ক্ষেত্রে সবকিছু রেডি করার পর নিজে একবার দেখুন, তারপর আরেকবার ছবি তুলে দেখুন। যদি কোনো সন্দেহ থাকে আপনার ছবির ব্যাপারে তাহলে ব্যাকগ্রাউন্ড বদলে ফেলুন, সিম্পল সাদা ব্যাকগ্রাউন্ড ব্যবহার করুন।

ছবি এডিটিংয়ের সময় মাথায় রাখুন প্রোডাক্টের বাস্তব রঙের সঙ্গে যেন ছবির রঙের মিল থাকে। এমন এডিট করবেন না যাতে প্রোডাক্টটা দেখতে অন্যরকম লাগে। তাতে কাস্টোমাররা ভাববে আপনি তাদের ঠকাচ্ছেন।

#৭. ভ্যারিয়েশন দেখান

মানুষ সবসময়ই অপশন পছন্দ করে। যখন কাস্টোমাররা একটা প্রোডাক্টের একটা রং বা ধরনের ছবি দেখবে তারা হয় কিনবে না হয় বাদ দিয়ে যাবে। কিন্তু একই প্রোডাক্টের একাধিক রঙ আর ধরন যদি ছবিতে থাকা তারা সেটা নিয়ে কিছুক্ষণের জন্য হলেও ভাববে। এসব ক্ষেত্রে বেশিরভাগ সময়ই মানুষ কোনো না কোনো প্রোডাক্ট কিনে নেয়, যেহেতু তারা অপশন দেখতে পায়।

এই টিপসটা একই সঙ্গে আপনার ভালো প্রোডাক্ট ফটোগ্রাফি আর বিক্রি বাড়ানোর ক্ষেত্রে কাজে দেবে।

সম্পর্কিত পোস্ট

Back to top button
error: Content is protected !!