শিরোনাম:
জাতীয়

হালকা বৃষ্টি থাকতে পারে পবিত্র ঈদুল আজহার দিন

সংশ্লিষ্ট অধিদপ্তরের আবহাওয়াবিদ আরিফ হোসেন বলেন, ‘এখনই ঈদের আবহাওয়ার পূর্বাভাস দেওয়া ঠিক হবে না। আমরা একদিন আগে জানাতে চাই। তবে এখন যে অবস্থা আছে, আবহাওয়ার সেটি আগামী ৩০ জুলাই পর্যন্ত থাকবে। এরপর আবহাওয়ার উন্নতি হবে যদি না কোনো সমস্যা হয়। সেই হিসেবে আগামী ৩১ জুলাই, ১ ও ২ আগস্ট হালকা বৃষ্টি হতে পারে।

দেশের উপকূলীয় এলাকাসহ বিভিন্ন অঞ্চলের ওপর দিয়ে ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি হচ্ছে প্রবল মৌসুমি বায়ুর প্রভাবে।

রংপুর, রাজশাহী, পাবনা, বগুড়া, টাঙ্গাইল, ময়মনসিংহ, সিলেট, ঢাকা, ফরিদপুর, যশোর, কুষ্টিয়া, খুলনা, বরিশাল, পটুয়াখালী, নোয়াখালী, কুমিল্লা, চট্টগ্রাম এবং কক্সবাজার অঞ্চলগুলোর ওপর দিয়ে দক্ষিণ বা দক্ষিণ-পূর্ব দিক থেকে ঘণ্টায় ৪৫ থেকে ৬০ কিলোমিটার বেগে অস্থায়ীভাবে দমকা হাওয়া বয়ে যেতে পারে। সেই সঙ্গে বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। এইসব নদীবন্দরে ১ নম্বর সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। আবহাওয়া অধিদপ্তরের পূর্বভাসে।

আজ দেশের সর্বোচ্চ বৃষ্টি হয়েছে নেত্রকোনায় ৯৪ মিলিমিটার। এছাড়া ঢাকা বিভাগের মধ্যে ফরিদপুরে ৪৭, চট্টগ্রাম বিভাগের মধ্যে মাইজদীকোটে ৪৮, সিলেটে ৩৪, রাজশাহী বিভাগের মধ্যে বগুড়ায় ১৬, রংপুর বিভাগের মধ্যে তেঁতুলিয়ায় ৪৫, খুলনা বিভাগের মধ্যে যশোরে ৩৯ এবং বরিশাল বিভাগের মধ্যে পটুয়াখালীতে ২৬ মিলিমিটার বৃষ্টি রেকর্ড করা হয়েছে।

এই আবহাওয়া বৃহস্পতিবার পর্যন্ত একই রকম থাকতে পারে। এরপর আবহাওয়ার উন্নতি হবে। কমে যাবে ঝড়ো হাওয়ার গতি। সেই হিসেবে আগামী ৩১ ও ১ আগস্ট আবহাওয়া আজকের তুলনায় ভালো থাকবে বলে আশা করছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

সম্পর্কৃত পোস্ট

Close