রেসিপি

ইফতার হোক ঘরে তৈরি স্পেশাল পুরি দিয়ে

পালং পুরি:

যা লাগবেঃ পালং শাক সিদ্ধ বাটা ১ কাপ, ময়দা দেড় কাপ, চিনি ১ চা চামচ, লেবুর রস ২ চা চামচ, লবণ স্বাদ মতো, তেল ১ টেবিল চামচ, তেল ভাজার জন্য।

যেভাবে করবেনঃ পালং শাক ধুয়ে কেটে সিদ্ধ করে বেটে নিতে হবে। এবার ১ কাপ ময়দার সঙ্গে চিনি, লবণ, তেল মেশাতে হবে। তারপর পালং শাক ও লেবুর রস দিয়ে ময়দায় মিশিয়ে নিন। মিশানো ময়দার সঙ্গে বাকি ময়দা মিশিয়ে খামির করতে হবে। খামির করে ১/২ ঘণ্টা রেখে ১২ ভাগ করুন। প্রত্যেক ভাগ দিয়ে ৮ সেমি ব্যাসের রুটি বেলতে হবে। কড়াইয়ে তেল গরম করে পুরি তেলে ছাড়তে হবে। ফুলে উঠলে কয়েক সেকেন্ড পর তেল ছেঁকে তুলে গরম গরম কাঁচা মরিচের চাটনির সঙ্গে পরিবেশন করুন পালং পুরি।

কাঁচা মরিচের চাটনি : কাঁচামরিচ ৩০ গ্রাম, জিরা ১/২ চা চামচ, তেঁতুল ২৫ গ্রাম, ধনেপাতা ৫ গ্রাম, হিং সামান্য, লবণ স্বাদমতো, সব উপকরণ পরিষ্কার করে বেটে কাচের বৈয়ামে রাখুন।

ডাল পুরি:

উপকরণ: মসুর ডাল আধা কাপ,আদা বাটা আধা চা চামচ,শুকনামরিচ ৬টি, দারুচিনি ১ টুকরা, এলাচ ২ টা,পিয়াজ ১ কাপ, ধনেপাতা কুচি ২ টেবিল চামচ,ময়দা ৩ কাপ, লবণ স্বাদমতোতেল ভাজার জন্য, পানি পরিমানমত।

প্রণালী: ডালে আধা থেকে পৌনে এক কাপ পানি, আদা, দারুচিনি , এলাচ এবং লবন দিয়ে মৃদু আঁচে সেদ্ধ করুন। ডাল সেদ্ধ হয়ে শুকালে ভালোভাবে নেড়ে নামান। দারুচিনি , এবং এলাচ তুলে ফেলে দিন। হাত দিয়ে ডাল মথুন। শুকনো মরিচ তেলে ভেজে গুঁড়ো করুন। ১ কাপ পেঁয়াজ বেরেস্তা করুন। ডালের সঙ্গে ভাজা মরিচ, বেরেস্তা, ধনেপাতা ও লবণ মেশান। ময়দার সঙ্গে ২ চা চামচ লবণ ও ৬ টেবিল চামচ তেল দিয়ে ময়ান দিন (ডালপুরি খাস্তা না করে নরম করতে চাইলে ময়দায় আরো ২ টেবিল চামচ তেলের ময়ান দেবেন) আধকাপ থেকে ১ কাপ পানি দিয়ে ময়দা মথুন। খামির নরম করবেন । ময়দা এবং ডাল সমান ভাগ করুন। এক ভাগ ময়দা নিয়ে গোল বাটির মতো করে মাঝে ডাল ভরে মুখ বন্ধ করুন। এভাবে সবগুলো করুন। পিঁড়িতে হালকা তেল দিন । একেকটি ডালের পুর ভরা ময়দার গোলা নিয়ে মুখ বন্ধ দিক নিচের দিকে রেখে বেলুন। সাবধানে বেলবেন যেন ডাল বের না হয়। ডালপুরি ডুবো তেলে মাঝারি আঁচে মচমচে করে ভাজুন। সস, চাটনি বা আচার দিয়ে পরিবেশন করুন।

চিকেন কিমা পুরি

উপকরণ: চিকেন কিমা ২৫০ গ্রাম, ময়দা ১ কাপ, পেঁয়াজ মিহি কুচি করা ২টি, হলুদ গুঁড়া সিকি চা চামচ, রসুন বাটা আধা চা চামচ, কাঁচামরিচ কুচি ৩-৪ টা, ধনেপাতা কুচি ১ টেবিল চামচপুদিনাপাতা কুচি ২ টেবিল চামচ, গরমমসলা গুঁড়া ১ চিমটি, লবণ স্বাদ মতো,তেল ময়ান এবং ভাজার জন্য

প্রস্তুত প্রণালি: ময়দায় পরিমাণ মতো লবণ, ১ চিমটি হলুদ গুঁড়া, ১ টেবিল চামচ তেল ও গরম মসলার গুঁড়া ময়ান দিয়ে পরিমাণ মতো পানি দিয়ে মেখে রেখে দিন। রসুন বাটা ও লবণ দিয়ে মুরগির কিমা সিদ্ধ করে নিন। প্যানে ১ টেবিল চামচ তেল গরম করে কুচানো পেঁয়াজ হালকা করে ভেজে নিন।সিদ্ধ কিমা, কাঁচামরিচ কুচি, ধনেপাতা কুচি ও পুদিনা পাতা কুচি ভালো করে ভাজা পেঁয়াজে মিশিয়ে নামিয়ে ঠাণ্ডা করে নিন। মেখে রাখা ময়দা আবারো কিছুক্ষণ ছেনে নিয়ে ছোট ছোট লেচি কেটে তাতে চিকেন কিমা ভরে পুরির আকারে বেলে নিন। প্যানে তেল গরম করে শ্যালো ফ্রাই বা ১৪০ ডিগ্রি তাপে বেক করে নিন চিকেন কিমা পুরি।

আলু পুরি:

উপকরণ : ডোয়ের জন্য :১. ময়দা ১ কাপ,২. হালকা গরম পানি ১/৪ কাপ,৩. তেল ১ টেবিল-চামচ,৪. লবণ ১ চা-চামচ।

পুরের জন্য :১. মাঝারি আলু ২টি,২. পেঁয়াজকুচি ৩ টেবিল-চামচ,৩. শুকনামরিচ ৩টি,৪. লবণ স্বাদ মতো,৫. তেল, ভাজার জন্য যতটুকু লাগবে ।

প্রণালি :

> ডোয়ের উপকরণগুলো ভালো করে মেখে চার, পাঁচ ঘণ্টা এমন একটা পাত্রে রেখে দিন যেন বাতাস ঢুকতে না পারে।

> প্যানে ১ টেবিল-চামচ তেল দিয়ে শুকনামরিচ আর পেঁয়াজ ভালো করে ভেজে নিন।

> আলু সিদ্ধ করে চামড়া ছাড়িয়ে চটকে ভাজা শুকনামরিচ, পেঁয়াজ আর লবণ মাখিয়ে নিন।

> চার, পাঁচ ঘণ্টা পর ডোটা আবার ময়ান করে পাঁচ-ছয়টি সমান ভাগ করুন। ভাগ করা ডো থেকে একটা একটা করে নিয়ে সামান্য বেলে তার মাঝে ১ টেবিল-চামচ আলুর পুর দিয়ে, চারপাশ থেকে ভালো করে মুড়ে আলতো করে বেলে নিন।

> ডুবো তেলে ভাজার মতো করে প্যানে তেল ঢেলে গরম করুন। তারপর মাঝারি আঁচে ভাজুন। পুরি বাদামি রং আর ফুলে উঠলে নামিয়ে নিন ।

> গরম গরম পুরি সালাদ, টমেটো সস আর চায়ের সঙ্গে পরিবেশন করুন।

ছানা পুরি ও হালুয়া:

ছানা পুরি উপকরণ :১. ছানা ২ কাপ২. চিনি ১ কাপ৩. খোয়া ক্ষীর ১ কাপ৪. ময়দা ৫০০ গ্রাম৫. ঘি আধা কাপ৬. সয়াবিন তেল পরিমাণ মতো৭. লবণ স্বাদমতো

প্রণালি :> অল্পগরম পানিতে ময়দা-ঘিয়ের ময়াম দিয়ে রাখুন। পরিমাণ মতো লবণ দিতে ভুলবেন না যেন। এবার গরম কড়াইয়ে ছানা, চিনি, ক্ষীর দিয়ে নাড়তে থাকুন। একটু পর যখন সবগুলো একসঙ্গে মিশে আঠালো হবে তখন নামিয়ে নিতে হবে। আগেই করে রাখা ময়দার ময়াম দিয়ে ছোট ছোট গোল করুন। যেন একটা লুচির সমান হয়। এবার গোল ময়দার মধ্যে ক্ষীরের পুর ভরে লুচি তৈরি করুন। তারপর ডুবতেলে ভেজে নামিয়ে আনলেই হয়ে গেল ছানা পুরি।

হালুয়া উপকরণ :১. সুজি ২৫০ গ্রাম২. চিনি ১৫০ গ্রাম৩. খোয়া ক্ষীর ১৫০ গ্রাম৪. ঘি ১০০ গ্রাম৫. এলাচ গুড়া সামান্য৬. ৫০ গ্রাম কাজুবাদাম কুচি৭. ঘন দুধ ৫০০ গ্রাম৮. এক চিমটি লবণ

প্রণালি :> ঘি গরম করে তাতে সুজি লাল করে ভেজে নিতে হবে। তারপর তাতে দুধ ঢেলে সুজি সেদ্ধ করে নিন। সেদ্ধ হয়ে গেলে তাতে দিতে হবে চিনি, কাজু কুচি, খোয়া ক্ষীর। এবার ঘন হয়ে এলে এলাচ গুড়া আর পরিমাণমতো লবণ দিয়ে নামিয়ে নিন। ব্যাস হয়ে গেল। অতিথি ভক্তি প্রকাশ পাবে আপনার হাতে যত্নে গড়া ছানা পুরী আর হালুয়ার আপ্যায়নে।

মটরপুরি:

উপকরণ :১. ময়দা দুই কাপ,২. বেকিং পাউডার আধা টেবিল চামচ,৩. মটরশুটি এক কাপ,৪. কাঁচামরিচ কুচি তিন/চারটি,৫. মরিচের গুঁড়া সামান্য,৬. ঘি তিন টেবিল চামচ,৭. লেবুর রস তিন/চার টেবিল চামচ,৮. লবণ স্বাদমতো।

প্রণালি :

> প্রথমে একটি বাটিতে ময়দা, বেকিং পাউডার, লবণ ও পানি একসঙ্গে মিশিয়ে ডো তৈরি করে নিন। এবার একটি ব্লেন্ডারে মটরশুটি ও কাঁচামরিচ একসঙ্গে ভালো করে ব্লেন্ড করে নিন। এর পর একটি প্যানে ঘি দিয়ে এর মধ্যে ব্লেন্ড করা মটরশুটি, মরিচের গুঁড়া, লেবুর রস ও লবণ দিয়ে নাড়তে থাকুন। ঘন হয়ে গেলে এর মধ্যে সামান্য ময়দা ছিটিয়ে ভালো করে মিশিয়ে প্লেটে তুলে রাখুন। এবার ময়দার ডো দিয়ে ছোট ছোট বলের মতো তৈরি করুন। এই বলের মধ্যে মটরশুটির পুর ভরে ছোট ছোট পুরির মতো বেলে নিন। গরম ঘির মধ্যে পুরভরা পুরি বাদামি করে ভেজে নিন। এবার সবজি বা মাংসের সঙ্গে গরম গরম পরিবেশন করুন দারুণ সুস্বাদু মটরপুরি।

সম্পর্কৃত পোস্ট

error: Content is protected !!
Close
%d bloggers like this: