বগুড়া সদর উপজেলা

মানবিক পুলিশ সুপার এর ভিন্নধর্মী এক জন্মদিন পালন

বগুড়ার জেলার একজন মানবদরদী, মানবিক পুলিশ সুপার যিনি জনৈক এক ব্যক্তির অভিন্ন এক জন্মদিন পালন করে রীতিমতো সারা ফেলেছেন সামাজিক অঙ্গন থেকে শুরু করে পুরো জেলার সকল মানুষের মাঝে।

শনিবার বগুড়া জেলা পুলিশ সুপার জানতে পারেন বগুড়ার স্বনামধন্য একজন বাউল শিল্পী সুকুমার বাউলের করোনাকালে বর্তমান অবস্থান। জানতে পেরে ছুটে যান পুলিশ সুপার আলী আশরাফ ভূঞা বিপিএম বার।

সুকুমার বাউল বগুড়ার একজন গুণি এবং পরিচিত মুখ। বাউল গান করার সুবাদে বগুড়ায় এবং ইউটিউবের সুবাদে সারাদেশেই মোটামুটি পরিচিত। প্রথম আলো পত্রিকায় ইতঃপূর্বে তাঁকে নিয়ে রিপোর্ট হয়েছিল এবং প্রথম আলো অন লাইনে তাঁর গাওয়া গান প্রচারও হয়েছিল। ঈগল মিউজিকের ইউটিউব চ্যানেল থেকে প্রচারিত তার একটি গান পাঁচকোটি বার দেখা হয়েছে।

করোনাকালে সংকটে পড়েছেন এ গুণি ব্যক্তি।”আর কুলায়ে উঠতে পারছি না দাদু” শিরোনামে প্রথম আলো অনলাইনে রিপোর্ট দেখে মন কেঁদে উঠে বগুড়ার মানবিক পুলিশ সুপার জনাব মোঃ আলী আশরাফ ভূঞা বিপিএম বার এঁর। তিনি কাউকে দায়িত্ব না দিয়ে নিজেই সকল জরুরি কাজ ফেলে চলে যান শহর থেকে প্রায় ৫০ কিলোমিটার দূরে সোনাতলা থানায় সুকুমার বাউলের বাড়িতে। খোঁজ খবর নেয়ার পাশাপাশি সাধ্যমত সহযোগিতা করেন এবং ভবিষ্যতে যেকোন প্রয়োজনে জেলা পুলিশের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ করেন। আজ বাউলের জন্মদিন জানতে পেরে পুলিশ সুপার মহোদয় তাৎক্ষণিকভাবে কেক কেটে জন্মদিন উদযাপন করেন এবং সুকুমার বাউল বাউল জানান একান্ন বছরে প্রথম বারের মতো তার জন্মদিন পালিত হলো।

সম্পর্কিত পোস্ট

Back to top button
error: Content is protected !!